Linux এর কাজ কি? লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমের সুবিধা

Linux উইন্ডোজ-এর মতই একটি অপারেটিং সিস্টেম। লিনাস টরভাল্ডস Linux অপারেটিং সিস্টেম আবিষ্কারক করেন।  ১৭ সেপ্টেম্বর, ১৯৯১ সালে সর্বপ্রথম অপারেটিং সিস্টেমটি রিলিজ হয়। লিনাস টরভাল্ডস সকলের জন্য তার আবিষ্কার উন্মুক্ত করে দিয়েছিলেন। এক কথায় বলতে গেলে Linux হচ্ছে একটি ওপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম। এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহার করা যায়। অনেকেই ভুল ধারণা পোষণ করেন যে, উইন্ডোজও তো ফ্রিতে ব্যবহার করা যায়। বিষয়টি এমন নয়। আমরা যারা ফ্রিতে Windows ব্যবহার করে থাকি। আমাদের সফ্টৗয়্যার লাইসেন্স করে ব্যবহার করার মত সামর্থ্য না থাকায় Crack ভার্সন ব্যবহার করে থাকি। যেকোনো সফ্টওয়্যার বা অপারেটিং সিস্টেমের crack ভার্সন ব্যবহার করাটা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। কেননা, Crack ভার্সনে হ্যাকারের পক্ষ থেকে ভাইরাস ও ম্যালওয়্যার ঢুকিয়ে দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ফলে, ব্যক্তিগত তথ্য থেকে শুরু করে সকল প্রকার তথ্য ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

Linux কি
Linux এর কাজ কি? লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমের সুবিধা

Linux অপারেটিং সিস্টেমের বৈশিষ্ট্য

১/ লিনাক্স ইউজারদের তথ্য সুরক্ষিত থাকে। ১০০% নিরাপদ না হলেও লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেমের তুলনায় অধিক নিরাপদ।  একারনেই লিনাক্সে নিরাপত্তার জন্য আলাদা Anti Virus Softwore ব্যবহার করতে হয় না। এর কাজের ধরন এমন, সহজেই এটি হ্যাক করা সম্ভব না। ফলে, ব্যবহারকারীর তথ্য থাকে অধিক সুরক্ষিত। অন্যদিকে Windows অপারেটিং সিস্টেমে নিরাপত্তার জন্য Anti Virus Softwore ব্যবহারের পিছনে প্রচুর টাকা ব্যয় করতে হয়।

২/ সেখানে লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম low configuration পিসিতে ইন্সটল করা যায়। লিনাক্সের ৫০০ এর অধিক ভার্সন distribution রয়েছে। কম্পিউটারের ক্যাপাবিলিটি অনুযায়ী লিনাক্স ইন্সটল করা যায়।

৩/ লিনাক্স সফ্টওয়্যার অন্যান্য অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেমের তুলনায় সহজ ও দ্রুত আপডেট নেয়।

৪/ লিনাক্সে রয়েছে কাস্টমাইজেশন সুবিধা। ইউজার তার পছন্দমত লিনাক্স ফিচারগুলো যুক্ত করতে পারে এবং কাস্টমাইজডও করতে পারে।

৫/ পোগ্রামিং নলেজ থাকলে লিনাক্স ওপেন সোর্স কোড মডিফাই করে আপনি আপনার সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটাতে পারেন। লিনাক্স টার্মিনাল windows কমান্ড থেকে অধিক সমৃদ্ধ ও উন্নত হওয়ায় প্রোগ্রামারদের নিকট লিনাক্স অধিক প্রিয়।

৬/ সম্ভাব্য সকল ধরনের ফাইল ফরম্যাট লিনাক্স  সাপোর্ট করে। ইউজারদের হাই স্পীড পারফর্মেন্সের জন্য আলাদা ভাবতে হয় না। এমনকি কম্পিউটারের hard disk পূর্ণ হয়ে গেলেও লিনাক্স হাই স্পীড পারফর্মেন্স দিতে পারে।

৭/ লিনাক্স হচ্ছে একটি Multi-Tasking অপারেটিং সিস্টেম। কাজের গতি না কমিয়েও একই সাথে অনেকগুলো কাজ করতে পারে। যেমন: এক সাথে অনেকগুলো ভারি ফাইল ডাউনলোড দিলেও সিস্টেম Slow down হবে না।

৮/ লিনাক্সের রয়েছে  ৫০০ ‘র অধিক distribution. প্রতিটির লুকও ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। যেমন: Fedora, Ubuntu, Arch linux, Linux mint, kali linux ইত্যাদি।

৮// সার্ভার হিসেবেও লিনাক্স windows এর তুলনায় বেশি নিরাপদ। একই সঙ্গে অনেক ইউজার লিনাক্স চালিত নেকওয়ার্ট ও ওয়ার্ক স্টেশনে কাজ করতে পারে। গুগল, ফেবসুকের মত টেক জায়ান্ট কোম্পানি লিনাক্স সার্ভার ব্যবহার করে থাকে। লিনাক্স সব ধরনের নেটওয়ার্ক ফাংশনালিটি সাপোর্ট করে। এছাড়াও  অধিকাংশ সুপার কম্পিউটার লিনাক্স সিস্টেম ব্যবহার করা হয়।

kali linux (কালি লিনাক্স)

১৩ মার্চ ২০১৩ সালে সর্বপ্রথম কালি লিনাক্স রিলিজ হয়। লিনাক্সের ৫০০ ’র অধিক ভার্সন রয়েছে। এগুলোর মধ্যে kali linux, Fedora, Ubuntu, Arch linux, Linux mint বেশ জনপ্রিয়। কালি লিনাক্স হ্যাকিং-এর জন্য কিছু এডভান্স টুল প্রদান করে। যেগুলো ব্যবহার করে হ্যাকিং করাটা সহজ। হ্যাকিং ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে কালি লিনাক্স হলে পারে আপনার সেরা পছন্দের একটি।

সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর

লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমের জনক কে

লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমের জনক হলেন লিনাস টরভাল্ডস। তিনি সকলের জন্য তার আবিষ্কার উন্মুক্ত করে দিয়েছিলেন।

উইন্ডোজে কালি ইন্সটল করা যায়?

হ্যাঁ! উইন্ডোজে কালি লিনাক্স সহ লিনাক্সের অন্যান্য ভার্সন ইন্সটল করা যায়। উইন্ডোজে কালি লিনাক্স ইন্সটল করার জন্য virtualbox ব্যবহার করতে পারেন।

সর্বসাধারণ কি লিনাক্স ব্যবহার করতে পারবে?

 হ্যাঁ! লিনাক্স সকলের জন্যই উন্মুক্ত। এটি সকলেই ব্যবহার করতে পারে। লিনাক্সের এমন অনেক distribution রয়েছে। যেগুলো দেখতে হুবহু Windows এর মতই। যেগুলোতে গ্রাফিকাল ইন্টারফেস রয়েছে, ক্লিক এবং ড্রপ করে সবকিছু করা যায়। যেমন: Ubuntu, Linux mint, POP Os

লিনাক্সে কি পর্যাপ্ত পরিমাণ সফ্টওয়্যার রয়েছে?

হ্যাঁ! Windows এবং Mac Os এ আমরা যেসকল সফ্টওয়্যার ব্যবহার করে থাকি। তার প্রায় অধিকাংশ সফ্টওয়্যারের লিনাক্স ভার্সন রয়েছে। সেসকল সফ্টওয়্যারের লিনাক্স ভার্সন নেই। যেগুলোর Alternative software রয়েছে। Windows বা Mac অপারেটিং সিস্টেমের মত লিনাক্সের সফ্টওয়্যারগুলোর অধিকাংশ পেইড হয় না। বরং, সম্পূর্ণ ফ্রি।

লিনাক্স ব্যবহার করা কি অপরাধ?

উত্তর: অনেকেই মনে করে থাকেন, লিনাক্স ব্যবহার করা অপরাধ। বিষয়টি এমন নয়। আপনি আপনার ব্যক্তিগত ব্যবহারিক কাজে যেমন লিনাক্স  ব্যবহার করতে পারেন। ঠিক তেমনিভাবে সাইবার সিকিউরিটি সহ ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করার কাজেরও করা অপরাধ নয়। যদি আপনি এটি কোনো অবৈধ কাজে ব্যবহার না করে থাকেন। এতে কোনো প্রকার বিধি নিষেধ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *