ব্যাকলিংক কি? backlink কিভাবে তৈরি করবেন

গুগলের ২০০ ও বেশি Ranking Factor রয়েছে। তন্মধ্যে, সবচেয়ে কার্যকরী Ranking Factor হচ্ছে ব্যাকলিংক। Moz সারা বিশ্বের সেরা SEO এক্সপার্টদের ইন্টার্ভিউ নিয়েছিল। তাদেরকে seo এর ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ Ranking ফ্যাক্টর সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়েছিল। তখন তাদের অধিকাংশের বক্তব্য ছিল: সাইটে বেশি ব্যাকলিংক থাকা Ranking এ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আজকে আমি আপনাদের সাথে কথা বলব: ব্যাকলিংক কি? ব্যাকলিংক কিভাবে কাজ করে এবং কি কি বিষয় মাথায় রেখে ব্যাকলিংক তৈরি করতে হয়।

ব্যাকলিংক কি এবং কিভাবে তৈরি করবেন
ব্যাকলিংক কি

Backlink কি?

ব্যাকলিংক হচ্ছে এক্সটারনাল লিংক (external link) যা অন্য ওয়েবসাইট থেকে আপনার ওয়েবসাইটে পেয়ে থাকেন। অর্থাৎ অন্য কোনো ওয়েবসাইটের সাথে আপনার ওয়েবসাইটের সংযোগ স্থাপন। ধরুন, একজন ভিজিটর কোনো সাইটে ভিজিট করল। সেখানে আপনার সাইটের লিংক দেওয়া রয়েছে। ভিজিটর সেই লিংকে ক্লিক করে আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করল। এভাবে একজন ভিজিটর অন্য ওয়েবসাইট থেকে লিংকের মাধ্যমে আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করাকেই ব্যাকলিংক বলা হয়।

কেন backlink ব্যবহার করবো?

একটি ওয়েবসাইটে যত বেশী backlink থাকবে। সেই ওয়েবসাইট থেকে প্রকাশিত আর্টিকেল খুব দ্রুতই rank করবে। উদাহরণস্বরূপ: একটি ওয়েবসাইটে ৮০০ backlink রয়েছে। আরেকটি ওয়েবসাইটে ৩০০ backlink রয়েছে। এ দুটি ওয়েবসাইটের মধ্যে প্রথম ওয়েবসাইটটি দ্রুত rank করবে। গুগল ranking এর ক্ষেত্রে প্রথম ওয়েবসাইটটিকে দ্বিতীয় ওয়েবসাইটের উপর প্রাধান্য দিবে। প্রথম ওয়েবসাইটটি দ্রুতই গুগলের প্রথম পেজে চলে আসবে। আপনি যদি ওয়েবসাইটে কনটেন্ট আপলোড করলেন। টাইলেট, মেটা ডেসক্রিপশন সহ Seo এর জন্য প্রয়োজনীয় বিষয়াদি পূরণ করলেন। কিন্তু, আপনার সাইটে ব্যাকলিংক তৈরি না করেন। তাহলে, ranking এর ক্ষেত্রে অনেকটা পিছিয়ে যাবেন। কাজেই ওয়েবসাইটে কনটেন্ট আপলোডের পাশাপাশি অন্যান্য সাইটে লিংক বিল্ডিংয়ের প্রতি মনযোগী হতে হবে।
backlink এর প্রকার:

backlink দুই প্রকার। ১. Do follow backlink ২. No follow backlink

উদাহরণ দিলে বিষয়টি পরিষ্কার বুঝে আসবে। ধরুন, আমি একটি আর্টিকেল লিখলাম। গুগল রোবট আমার আর্টিকেলে এসে কোথায় কোথায় লিংক রয়েছে তা খুঁজে বের করবে। এ ক্ষেত্রে যদি লিংকটি do follow হয়। তাহলে, এর দ্বারা গুগল রোবট সেই লিংকটি index করে নিবে। আর যদি no follow হয়, তাহলে সেই লিংকটি index করবে না। ওয়েবসাইটে no follow লিংক বিল্ডিংয়ের চেয়ে do follow backlink করাটা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ওয়েবসাইটে পাঁচশত no follow backlink তৈরি করার চেয়ে দুইশত do follow backlink তৈরি করার দ্বারা ভালো। তবে, seo এর জন্য উভয় প্রকার backlink তৈরি করতে হয়। ৭০% do follow আর বাকি ৩০% no follow backlink করলে seo তে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়।

আমরা কীভাবে backlink পেতে পারি?

backlink তৈরি করার সবচেয়ে ভালো পদ্ধতি হচ্ছে গেস্ট পোস্ট। অর্থাৎ, অন্যের সাইটে আর্টিকেল লিখে সেখান থেকে ব্যাকলিংক তৈরি করা। এটি সবচেয়ে কার্যকর পদ্ধতি। তাছাড়া, কোনো সাইটের এডমিনের সাথে সমঝোতার মাধ্যমে লিংক এক্সচেঞ্জ করে ব্যাকলিংক তৈরি কো যেতে পারে। তাছাড়া, বিজ্ঞাপন প্রদর্শনের মাধ্যমেও ওয়েবসাইটে ব্যাকলিংক তৈরি করতে পারেন।

backlink কি ভিজিটর বাড়াতে সাহায্য করে?

হ্যাঁ! ব্যাকলিংক যেভাবে আপনার ওয়েবসাইটকে গুগলে র‌্যাঙ্ক পেতে সাহায্য করে। অনুরূপভাবে ওয়েবসাইটে ব্যাকলিংক ভিজিটর বাড়াতে সাহায্য করে। যখন কোনো ওয়েবসাইটে আপনার সাইটের কনটেন্টে আপনার সাইটের লিংক করানো থাকবে। তখন, সেই সাইট থেকে আপনার সাইটে ভিজিটর আসার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

যে সকল বিষয় সামনে রেখে backlink তৈরি করতে হয়

গুগল প্রতিনিয়তই চেক করে ওয়েবসাইটে মোট কতদিনে কতটি backlink তৈরি করেছে। যদি আপনি এক দিনে ৫০টি backlink তৈরি করেন। তাহলে, এভাবে link building করাটা ranking এর ক্ষেত্রে তেমন কোনো প্রভাব ফেলবে না। অপরদিকে যদি আপনি ত্রিশ দিনে ৫০টি backlink তৈরি করেন। তাহলে, এটি আপনার সাইটে প্রভাব ফেলবে। আপনার সাইটের কনটেন্ট দ্রুত rank করবে। কাজেই natural link building করতে হবে।

আপনার সাইটটি যেই রিলেটেড, সেই রিলেটেড ওয়েবসাইটে backlink তৈরির চেষ্টা করবেন। ফলে, এটি আপনার সাইটে বেশি কার্যকর করে। ধরুন, আপনার ওয়েবসাইটটি ফুড রিলেটেড। এখন যদি আপনি নয়া দিগন্ত বা প্রথম আলো থেকে ব্যাকলিংক তৈরি করেন তাহলে, সেই ব্যাকলিংকটি আপনার সাইটে যতটা না প্রভাব বিস্তার করবে। তার চেয়ে বেশি প্রভাব বিস্তার করবে, যদি আপনি foodpanda থেকে ব্যাকলিংক তৈরি করতে সক্ষম হন। এ জন্য backlink তৈরির জন্য বিষয়টি খুব ভালো করে মাথায় রাখবেন।

backlink তৈরির পূর্বে ওয়েবসাইটের spam score চেক করে নিন। যদি এমন ওয়েবসাইট থেকে backlink তৈরি করেন সে সাইটের spam score অনেক বেশি। তাহলে, আপনার ওয়েবসাইটের spam score বেড়ে যাবে। তাহলে, ফল হিতে-বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর ওয়েবসাইটের spam score বেড়ে যাওয়ায় Google penalty ব্লক হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

অধিক backlink এর ফলে আপনার সাইটের domain authority বৃদ্ধি পাবে। backlink তৈরি করার ক্ষেত্রে এমন ওয়েবসাইট নির্বাচন করুন যে সাইটের domain authority হাই লেভেলের। high quality backlink তৈরি করলে অন্য সাইটগুলো পিছনে ফেলে আপনার সাইট দ্রুত র‌্যাঙ্কিং এ আসবে। আপনার সাইটের ডোমেইন অথরিটি বৃদ্ধি পাবে। যথাসম্ভব টপ-লেভেল ডোমেইন থেকে backlink তৈরি করার চেষ্টা করবেন। টপ-লেভেল ডোমেইন যেমন: .com, .net, .org, .gov, .mil, .edu ইত্যাদি।

কোনো ওয়েব সাইটের কমেন্ট বক্সে গিয়ে backlink তৈরি করবেন না। অনুরূপভাবে forum backlink, directory submission ও করবেন না। ২০১০-১১ এর দিকে এভাবে কমেন্ট বক্সে কমেন্টের মাধ্যমে backlink তৈরি করা হত। তবে, বর্তমানে এর দ্বারা সাইটে নেগেটিভ প্রভাব দেখা দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *